ভালোবাসা কাকে বলে ? 2021
যে মানুষটা সারাক্ষণ তোমার সাথে কথা বলার জন্য ছটফট করতে থাকে, রাত জেগে থাকে... তোমাকে নিয়ে ভাবতে থাকে, স্বপ্ন দেখে... একটু আড়াল হলেই ফোন দেয় কিংবা অস্থির হয়ে যায়, সেই মানুষটাকে যদি ভুল ভাবো তাহলে তুমি তার যোগ্য হতে পারোনি !!

ভালোবাসা কাকে বলে ? 2021

ভালোবাসা কাকে বলে ? তুমি মেসেজ দিতে দেরি করলে অথবা তুমি মেসেজ সিন করতে দেরি করলে কিংবা ফোনে ওয়েটিং পেলে যে মানুষটা হুট করে রেগে যায়, সেই মানুষটা তোমাকে ভালোবাসে !

যে মানুষটা সারাক্ষণ তোমার সাথে কথা বলার জন্য ছটফট করতে থাকে, রাত জেগে থাকে… তোমাকে নিয়ে ভাবতে থাকে, স্বপ্ন দেখে… একটু আড়াল হলেই ফোন দেয় কিংবা অস্থির হয়ে যায়, সেই মানুষটাকে যদি ভুল ভাবো তাহলে তুমি তার যোগ্য হতে পারোনি !

যে যাকে যখন চায়, যে মূহূর্তে চায়, যে সময়ে চায় ঠিক সেই সময়ই মানুষটাকে না পেলে রাগ হয়, অভিমান হয়… আর তখন তুমি যদি তার অভিমান কিংবা রাগটাকে গ্রহণ করতে না পারো উল্টা তার সাথে রাগারাগি করো তাহলে তুমি তাকে ভালোবাসতে পারোনি ।

তোমার ফেইসবুক আইডিতে কে কি কমেন্ট করলো, কে রিয়েক্ট দিলো, তুমি কি রিপ্লে দিলে, তুমি কোথায় কি রিয়েক্ট দিলে, কি কমেন্ট করলে এসব কিন্তু মানুষ এমনি এমনি নজর রাখে না। কারো মনে একটু জায়গা করে নিতে পারলে কেউই এসব খেয়াল করে না।

নিজের মানুষটাকে কেউই এক মূহূর্তের জন্য হলেও আড়ালে দেখতে চায় না… সব সময়ই চায় প্রতিটা মূহূর্তই মানুষটা একান্তই নিজের হয়ে থাকুক… তার জন্য অপেক্ষা করুক… তাকে নিয়ে একটু ভাবুক… মানুষটা যেনো একান্তই নিজের হয়, যার সাথে থাকবে না অন্য কারোর যোগাযোগ !

এতো মানুষ থাকার পরও কেউ একজন তোমার উপর রাগ অভিমান করে আর এটা যদি তুমি বুঝতে না পারো কিংবা বুঝেও যদি না বুঝার ভান করে থাকো তাহলে দেখবে কোনো একদিন মানুষটা তোমার উপর রাগ অভিমান করছে না… মানুষটা বদলে গেছে !

মানুষ তখনই বদলে যায় যখন সে তার রাগ অভিমানের মূল্য পায় না… প্রতিবার নিজেই নিজের রাগ অভিমান ভাঙাতে হয়, তখন সে ধীরে ধীরে রাগ অভিমান করা ভুলে যায়… মানুষটা ভিতর থেকে তখন একটু একটু করে মরে যায় !

এতো মানুষের ভিড়ে কেউ তোমার উপর অধিকার খাটাচ্ছে… তোমাকে চোখে চোখে রাখছে… তোমার ভুলত্রুটি বলে দিচ্ছে… আর এসব যদি তোমার বিরক্ত লাগে তাহলে তুমি তার ভালোবাসা পাওয়ার যোগ্যতা অর্জন করতে পারোনি !!

তাই নিজের কাছের মানুষটাকে মূল্য দাও… নয়তো দেখবে কোনো একদিন এই বিরক্তিগুলো খুব মিস করবে… যখন কেউ রাগ অভিমান করবে না কিংবা অধিকার দেখাবে না সেদিন বুঝবে তুমি কি পেয়ে কি হারালে… সেদিন সব ঠিক থাকবে শুধু সেই মানুষটা আর তোমার থাকবে না !

নতুন মানুষ পেয়ে পুরনো মানুষটাকে,পুরনো বন্ধুকে,পুরনো ভালোবাসা কে ভুলে যায়?

নতুন মানুষ পেয়ে পুরনো মানুষটাকে,পুরনো বন্ধুকে,পুরনো ভালোবাসা কে ভুলে যায়?

পছন্দের জিনিসটা পুরনো হয়ে গেলে কেউ কেউ তা যত্ন করে রেখে দেয়।আবার কেউ কেউ তা জঞ্জাল মনে করে ছুঁড়ে ফেলে দেয়।

যারা যত্ন করে রেখে দেয় তাদের মধ্যে পুরনো জিনিসের জন্য আলাদা একটা মায়া কাজ করে,ফেলে দিতে কেমন যেন খচ খচ করে মন। মাঝে মাঝে বের করে জিনিসটার প্রতি হাত বুলিয়ে আবার রেখে দেয়।

আবার যারা ছুঁড়ে ফেলে দেয় এদের নতুনের প্রতি ভীষন একটা আকর্ষণ কাজ করে।পুরনো জিনিস মানেই কেমন যেন একটা ভারি ভারি ভাব।ফেলে দিয়ে জঞ্জাল পরিস্কার করতে পারলেই যেন বাঁচে।

আবার নতুন করে কিনে আনে। এটা তো গেল জিনিসের কথা। এমনও কিছু কিছু মানুষ আছে যারা পুরনো জিনিস বদলানোর মতো মানুষও বদলায়। আজ যে প্রিয় কাল সে অচেনা। নতুন মানুষ পেয়ে পুরনো মানুষটাকে,পুরনো বন্ধুকে,পুরনো ভালোবাসা কে ভুলে যায়। এরা প্রতিনিয়ত নতুনের নেশায় ডুবে থাকে। এরা গিরগিটির মতো রং বদলায়।এদের মুখে মধু আর অন্তরে থাকে বিষ।

চেনা মানুষটাকে এরা মুহুর্তের মধ্যেই অচেনা বানিয়ে ফেলার এক দূর্দান্ত ক্ষমতা নিয়ে জন্মায়।ভুল করেও কখনো ভাবে না যে তার সেই পুরনো মানুষটা,বন্ধু বা প্রিয়জন তাকে হারিয়ে কেমন আছে,কি করছে।

আবার কিছু কিছু মানুষ আছে পুরনো জিনিস যত্ন করে রাখার মতোই পুরনো সম্পর্কটাও খুব যত্ন করে রাখে। নতুন সম্পর্কে জড়াতে,নতুন মানুষের সঙ্গ পেতে,নতুনের সাথে পরিচিত হতে এরা ভয় পায়।

আসলে এই ভয়টা আসে পুরনো মানুষটার প্রতি ভালোবাসা আর শ্রদ্ধা থেকে।বছরের পর বছর এরা পুরনো মানুষ,পুরনো বন্ধু আর পুরনো প্রিয়জনকেই যত্ন করে ভালোবেসে যায়।এই পুরনো মানুষের মাঝেই এরা এক প্রকার আত্মিক সুঘ্রাণ খুঁজে পায়।

সুতরাং মানুষ নির্বাচনে সবারই উচিৎ হিসাব কিতাব করে নির্বাচন করা।হোক সে বন্ধু/
বান্ধব,প্রিয় মানুষ বা একান্ত প্রিয়জন। তারাহুড়ো করে কারো মায়ায় পড়ে যেতে নেই,কাউকে বিশ্বাস করতে নেই। মানুষটাকে বুঝতে,চিনতে,জানতে সময় নেয়া উচিৎ।
যে কোন সম্পর্কে জড়ানোর আগে অবশ্যই যাচাই করে নেয়া উচিৎ।

Related Post: স্ত্রীকে ভালবাসুন| স্ত্রীর প্রতি দায়িত্ব ও ভালোবাসা বাড়ান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *